নেটফ্লিক্স থেকে সময় বাচান ৫টি কৌশলের মাধ্যমে

নেটফ্লিক্স আমাদের প্রচুর সময় নষ্ট করে। একবার যে আসক্ত হচ্ছে, তার জন্য ছাড়া পাওয়া মুশকিল হয়ে যাচ্ছে। তখন হয়তো অনেকেই ভাবছেন নেটফ্লিক্স থেকে সময় বাচাবো কিভাবে বা নেটফ্লিক্স আমার অনেক সময় নষ্ট করছে এর সমাধান কি। আমিও এমন সমস্যায় পরেছি অতপর সমাধান খুজেছি। এর মধ্যে যেগুলো আমাকে সাহায্য করেছে তা আপনাদের সাথে শেয়ার করছি। এই কৌশল্গুলোর মাধ্যমে আমি নেটফ্লিক্সকে কন্ট্রোল করেছি। আমি এখনও নেটফ্লিক্স দেখি কিন্তু আমি যদি চাই আমি দিনে ১ ঘন্টা দেখব তো এক ঘন্টাই দেখি, যদি ভাবি ৩০ মিনিট তো ৩০ মিনিট, আর যদি ভাবি দেখব না তো দেখি না। নেটফ্লিক্স চাইলে ও আমাকে ড্রাগের মত আসক্ত করতে আর পারছে না।

০১ >> এপিসোডের শেষে না থেমে এপিসোডের মাঝে থেমে যান।
নেটফ্লিক্স এপিসোডগুলো এমনভাবে শেষ করে যাতে আপনি পরের এপিসোড দেখার জন্য হুমড়ি খেয়ে পরেন। এটা ওদের চালাকি। তো আপনি এপিসোডের শেষে না থেমে মাঝেই থেমে যান। হয় যেটা দেখছেন সেটার মাঝে বা পরেরটার ৫/১০ মিনিট পরে বা মাঝে। বিশেষ করে লক্ষ রাখবেন এপিসোডের মাঝে কোথাও লম্বা কথোপকথন হয় কিনা। ওখান থেকে থেমে যাওয়া সহজ। কারন ওডিয়েন্স এপিসোডে লম্বা কথপকথন পছন্দ করে না। এটার সুযোগ নেটফ্লিক্স নেয়, আপনিও নিন।

০২ >> এক সিজন শেষ করে অন্য সিজনের প্রথম ১০ মিনিট দেখুন।
নেটফ্লিক্স সিজনগুলো এমনভাবে শেষ করে যাতে আপনি ঘটনার পুরো সমাধান পাবেন না বা পেলেও কিছু একটা বাদ রাখবে। এর কারন আপনি ঠিকই বোঝেন। তা হল আপনাকে পরবর্তী সিজনে টেনে নেওয়া। এক সিজন শেষের রহস্য পরের সিজনের শুরুতে দেওয়া থাকে। পরের সিজনের শুরুতে অল্প একটু দেখলেই দেখবেন আপনার আর ভাল লাগছে না দেখতে। আর যদি পরের সিজন বের না হয় তাহলে ভাল। এখন আপনার বুদ্ধির ব্যবহার করুন।

০৩ >> ধর্য্য ধরুন অল্প সময়
এক সিজন বা এপিসোড শেষ করেই আপনার পাগলা মনকে থামান। ৫ মিনিট ধর্য্য ধরুন। আর ভাবুন সত্যটা কি। নেটফ্লিক্স আপনাকে ট্রাপে ফেলে বোকা বানিয়ে আপনার সময় নষ্ট করছে। এটা তাদের ব্যবসা। এতে তারা লাভবান হচ্ছে কিন্তু আপনার ক্ষতি হচ্ছে। নেটফ্লিক্সের পৌষ মাস আপনার সর্বনাশ।

০৪ >> ক্যারিয়ারের দিকে বেশি নজর দিন।
শুধু নেটফ্লিক্স নয়, অনলাইনে অযথা যেভাবেই সময় নষ্ট করুন না কেন একবার ভেবে দেখুন, আপনার কি করা উচিত ছিল আর আপনি কি করছেন? এটা আপনাকে কোথায় নিয়ে যাচ্ছে? যারা এভাবে সময় নষ্ট করছে না ৫ বছর পর তাদের আর আপনার মাঝে পার্থ্যকটা কেমন হবে? আপনি কোথায় থাকবেন আর তারা কোথায় থাকবে? একই সাথে ভাবুন আপনি যদি এই সময় নষ্ট না করেন তো আপনি অন্যের থেকে কতটা এগিয়ে যেতে পারবেন? আপনি কি আপনার কর্মের দ্বারা ইউজলেস হচ্ছেন? নাকি হচ্ছেন না? আপনি যা করছেন তা কি সম্মানের কাজ? নাকি আপনাকে ট্রাপে ফেলে বোকা বানিয়ে গুগল, ফেইসবুক, নেটফ্লিক্স, ইউটিউব লাভবান হচ্ছে আর আপনি নিজের ক্যারিয়ারের গায়ের চামড়া ছিড়ে ওদের দিচ্ছেন যাতে আপনার মাংস খেয়ে ওরা বড় হতে পারে।

০৫ >> আপনার রেগুলার ডিউটির বিষয় বেশি বেশি স্মরণ করুন।
আপনার রেগুলার ডিউটি হতে পারে আপনার লেখাপড়া বা আপনার চাক্রী, বা ঘর সামলানো বা ছেলে মেয়ে মানুষ করা। এগুলো বেশি বেশি স্মরণ করুন, দেখবেন আপনার একটা এক্সট্রা মনোযোগ তৈরি হবে যা নেটফ্লিক্স, ইউটিউব, ফেইসবুক থেকে আপনাকে দূরে রাখবে। আর যদি নেটফ্লিক্স নিয়ে ভাবেন তো আপনার মন আপনাকে টেনে আবার নেটফ্লিক্সের ভেতরে ঢোকাবে। তাই আপনি নিজেই একটু চিন্তা করে দেখুন সাড়া দিন আপনার কি নিয়ে ভাবা উচিত আর কি নিয়ে ভাবা উচিত নয়।

সময় খুব গুরুত্বপূর্ণ জিনিস। নষ্ট করবেন না। নষ্ট করার আগে ভাবুন এই সময়টা যদি আপনি আপনার পরিবারকে ভালোভাবে দিতে পারতেন তো আপনার তো আপনার পরিবার কতটা খুশি হত। এই সময়কে আপনার পরিবার, আপনার ক্যারিয়ার কিভাবে নিত আর এই সময়টা নেটফ্লিক্স, ইউটিউব, ফেইসবুক কিভাবে নিচ্ছে।

Leave a Reply

You cannot copy content of this page